বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির যুগে এখন সবকিছুই পোর্টেবল। কম্পিউটারের জন্য এখন বিশেষ কোন জায়গা লাগে না। হাতে একটা ল্যাপটপ থাকলেই ধুমচে সব কাজ শেরে ফেলা যায়। কিন্তু কোন কোন জায়গায় আবার ল্যাপটপ পরিবহন করাও বিরক্তিকর লাগে। তবে পকেটের মোবাইলটা কিন্তু সবখানেই নিয়ে যাওয়া যায়। আর সেই মোবাইলেই যদি অধুরা কাজ শেরে ফেলা যায় তাহলে আর চিন্তা কিসের? অফিসে কোন কাজ ছিল? কিন্তু সময়ের অভাবে করতে পারেন নি? সমস্যা নেই এখন থেকে যেখানেই থাকবেন না কেন অফিসের কাজ করতে পারবেন সবজায়গায়। আর এর জন্য আপনার প্রিয় স্মার্টফোনটিই যথেষ্ঠ।

তাই আজকে আমি আপনারদের অসাধারণ একটি এ্যাপ্লিকেশন উপহার দেব যার সাহায্যে আপনি PDF, DOC, XLS, PPT ইত্যাদি ফাইলগুলি আরামচে পড়তে পারবেন, এডিট করতে পারবেন এমনকি নতুন ফাইল তৈরীও করতে পারবেন। আর সবচেয়ে মজার ব্যাপারটি হল আপনি যেকোন ডকুমেন্টগুলিকে 3D করেও দেখতে পারবেন 🙂 । আর যেকোন ডকুমেন্ট পড়ার জন্য এর ইফেক্টগুলিও কিন্তু দারুণ ! আর এর সবচেয়ে মজার ফিচারটি হলো এটি ইউনিকোড সাপোর্ট করে।

এ্যাপ্লিকেশনটির বিভিন্ন ফিচারগুলিঃ

এ্যাপ্লিকেশনটির ইন্টারফেস খুবই সুন্দর এবং সহজবোধ্য। তাই সহজেই আপনি এ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করতে পারবেন।

নিচের চার্টটি দেখলে বুঝতে পারবেন এটি কোন কোন ফাইলগুলি পড়তে সক্ষম এবং এডিট করতে সক্ষম

ষ্টাইলিশ জুমিং সুবিধা এবং অসাধারণ ইফেক্ট-

এপ্লিকেশনটি ওপেন করে কোন একটি ডকুমেন্ট বের করুন। তারপর আপনার কাঠির সাহায্যে বা হাত দিয়ে ফাইলটিতে কিছুক্ষণ হোল্ড করুন। তাহলে নিচের মত দুইট + – চিন্হ বের হবে। তখন হোল্ড অবস্থায় উপরে কাঠিটি নিয়ে গেলে জুম হবে আর নিচে নিয়ে গেলে ছোট হবে। নিচের স্কিনশর্টটি দেখুন

ধরুন আপনি অনেকগুলি পাতার একটি ইবুক পড়ছেন। ইবুকটিতে অনেকগুলি পাতা তাহলে যদি কখনো সরাসরি অন্য পেজগুলিতে তাড়াতাড়ি যাওয়ার প্রয়োজন হয় তাহলে উপরে দেখুন “Pages” নামে একটি অপশন আছে। সেখানে ক্লিক করুন।

অসাধারণ থ্রিডি ফিচারঃ

আমার কাছে সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টি মজার মনে হয় সেটি হল এই এপ্লিকেশনটির 3D ফিচারটি। যেকোন ডকুমেন্টকে আপনি থ্রিডি মুডে দেখতে পারেন। এরজন্য কোন একটি ইমেজওয়ালা ডকুমেন্ট ওপেন করুন। এরপর থ্রিডিতে ক্লিক করুন। আর দেখুন মজা 🙂 ।

অনেকগুলি ফাইল তৈরী এবং এডিট করার সুবিধাঃ

এপ্লিকেশনটির আরও একটি দারুন সুবিধা হলো আপনি এর সাহায্যে যেকোন (সাপোর্টেট) ফাইল এডিট করতে পারবেন। এমনকি নতুন ফাইলও তৈরী করতে পারবেন। এর জন্য আপনি এপ্লিকেশনটি চালু করে “New Document” এ ক্লিক করুন। তারপর আপনার চাহিদা অনুযায়ী যেকোন একটি ফরমেটকে বেছে নিন এবং ফাইল তৈরী করা শুরু করুন।

ইউজার ম্যানুয়ালঃ

আমার টিউনটিতে আমি বিস্তারিতভাবে কোন বিষয়ই আলোচনা করিনি। আর অত বিষয় বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করাও সম্ভব নয়। তাই এপ্লিকেশনটিতে একটি সুন্দর ম্যানুয়ালও পাবেন। এরজন্য উপরে “Help” এ ক্লিক করুন।

আরও বিস্তারিত এবং দারুন দারুন সব ফিচারগুলি দেখতে চাইলে নিচের ভিডিওটি অবশ্যই দেখতে হবেঃ

ডাউনলোডঃ

iOS-

সিমবিয়ান (শুধুমাত্র 5th এবং Symbian^3 এর জন্য) –

এনড্রয়েট- (শুধুমাত্র Android 1.6 এবং তার পরের ভার্সনগুলিতে কাজ করবে)

====

আমার আগের করা টিউনগুলি দেখতে চাইলে উপরে “আমার টিউনার পাতা” তে ক্লিক করতে পারেন।

আর আমার নতুন নতুন সব লেখা গুলি মিস না করতে আমাকে সাবস্ক্রাইব করতে পারেন। এর জন্য উপরে “আমার টিউন আর,এস,এস -এ ক্লিক করুন। আমার টিউন পৌছে যাবে আপনার ই-মেইল-এ।

মোবাইল বিষয়ক যেকোন সমস্যায় আমাকে ফেসবুকে নক করতে পারেন- http://facebook.com/crazzzzzzyboy

====